৫ সেকেন্ডের জন্য যদি অক্সিজেন না থাকে কি ঘটবে এই পৃথিবীতে?

৫ সেকেন্ডের জন্য যদি অক্সিজেন না থাকে কি ঘটবে এই পৃথিবীতে?

মানুষের বেঁচে থাকার জন্য প্রধান কয়েকটি উপাদানের মধ্যে অক্সিজেন অন্যতম।মানুষের বেঁচে থাকার জন্য অক্সিজেনের কোনো বিকল্প নেই।

মানুষ কেনো যেকোনো প্রাণীর বেঁচে থাকার জন্য অক্সিজেন দরকার।তবে আপনি যদি মনে করেন অক্সিজেন শুধুমাত্র প্রানীর বেঁচে থাকার জন্য দরকার!তাহলে ভুল হবে।কারন এই পৃথিবীর সব কিছুর জন্যই অক্সিজেন দরকার।

আমরা যে মাটির উপর দাঁড়িয়ে আছি সেই মাটির নিচের প্রায় ৪৫ শতাংশই অক্সিজেন।

অর্থ্যাৎ,আমরা যেই মাটির উপরে দাঁড়িয়ে আছি সেই মাটিকে ৪৫ শতাংশ অক্সিজেন ধরে রেখেছে।

কিন্তু এই মাটিতে যদি অক্সিজেন না থাকে তাহলে কি ঘটবে?

মাটিতে অক্সিজেন না থাকলে মাটি হালকা হয়ে ধসতে থাকবে।আর মাটির এই ধসে যাওয়া প্রক্রিয়া চলতে থাকলে আমাদের কারোরই অস্তিত্ব থাকবে না।

এখন চিন্তা করেন পৃথিবীতে যদি অক্সিজেন না থাকে তাহলে কি ঘটবে?শুধুমাত্র ৫ সেকেন্ডের জন্য যদি অক্সিজেন না থাকে তাহলে কি হবে?

 

আপনার জন্য আরোও কিছু পোষ্টঃ

আকাশে স্যাটেলাইট ধ্বংসের পর কি পরিণতি হয়?

১ দিনের জন্য যদি সূর্য গায়েব হয়ে যায়! কি ঘটবে এই পৃথিবীতে?

 

মানুষ মূলত ৩০ সেকেন্ড অক্সিজেন ছাড়া থাকতে পারে।তবে হঠাৎ করে ৫ সেকেন্ড অক্সিজেন না থাকার কারনে ভেঙ্গে পড়বে কংক্রিটের স্থাপনা, আকাশে উড়তে থাকা প্লেন উল্কার মতো মাটিতে ভেঙে পড়বে।

মুহুর্তের মধ্যে পরিবেশের এক বিশাল বিপর্যয় ঘটে যাবে। সব কিছু একবারে লন্ডভন্ড হয়ে যাবে।

পৃথিবীর বায়ুমন্ডলের ২১ ভাগ অক্সিজেন আর ৭৮ ভাগ নাইট্রোজেন। কিন্তু অক্সিজেন যদি এই অবস্থায় না থাকে বায়ুমন্ডলে নাইট্রোজেনের আধিক্যতার কারনে চারদিকে বিষের মত ছড়িয়ে যাবে।

সূর্যের অতিবেগুনী রশ্মি সরাসরি পৃথিবীতে নেমে আসবে।যেটা প্রাণীসহ উদ্ভিদের জন্য অনেক ক্ষতিকর প্রভাব ফেলবে।

অর্থ্যাৎ,অক্সিজেন ছাড়া উদ্ভিদ, প্রাণি,পানিসহ কোনো কিছুই নিজের অবস্থানে টিকে থাকতে পারবো না।

৫ সেকেন্ডের জন্য যদি অক্সিজেন না থাকে তাহলে কি ঘটবে এই পৃথিবীতে
৫ সেকেন্ডের জন্য যদি অক্সিজেন না থাকে কি ঘটবে এই পৃথিবীতে

 

অক্সিজেন ছাড়া পানির উপর যে অবস্থা হবে

আচ্ছা বলুন তো, পানি কোন কোন পদার্থের সমন্বয়ে ঘঠিত? নিশ্চয় হাইড্রোজেন ও অক্সিজেন এই দুইটা পদার্থের সমন্বয়ে।

এখন হঠাৎ করে যদি পানিতে থাকা অক্সিজেন নাই হয়ে যায় তাহলে শুধুমাত্র পড়ে থাকবে হাইড্রোজেন।

হাইড্রোজেন এমনিতেই অনেক হালকা একটি গ্যাস তার মধ্যে যদি হাইড্রোজেন থেকে যদি অক্সিজেন গায়েব হয়ে যায় তাহলে মুহুর্তের মধ্যেই তা আকাশের দিকে যেতে থাকবে।

এবং পৃথিবীতে যত পানি আছে তা বাষ্পীভূত হয়ে খুব দ্রুত গতিতে মহাকাশে চলে যাবে।

 

আচ্ছা বলুন তো আমরা দালান কিভাবে তৈরি করি?উত্তরঃ ইট বালু সিমেন্ট কে একত্রে করে।

কিন্তু আপনি কি জানেন ইট বালু সিমেন্ট কে একত্রে জমি রাখে কে?এই উত্তরটা আমি দেই,অক্সিজেন।

আপনি একটি কংক্রিট ভাঙ্গুন!কংক্রিট ভাঙ্গা ছোট্ট এই কোণাগুলোকেও জমিয়ে রাখে অক্সিজেন।

এখন হঠাৎ করে যদি অক্সিজেন নাই হয়ে যায় তাহলে বুঝুন আপনার আশে পাশে থাকা কংক্রিটের তৈরি বিশাল বিশাল বিল্ডিং এর পরিণতিটাই না ঘটবে।

সব দালান কোঠা একবারে পাউডারের মতো চুরমার হয়ে যাবে।কোনো কিছুই ঠিক থাকবে না।

গাছের সাথে কিন্তু অক্সিজেনের সম্পর্ক নিভির। আমাদের যে কার্বন ডাই অক্সাইড গাছ টেনে নেয় এবং গাছ আমাদের অক্সিজেন দেয়।

এখন হঠাৎ করে যদি অক্সিজেন না থাকে তাহলে পৃথিবীতে ছোট-বড় সকল গাছ শুকিয়ে মরে যাবে।

অক্সিজেন ছাড়া কিন্তু আপনি আগুনও জ্বালাতে পারবেন না। হঠাৎ করে যদি অক্সিজেন গায়েব হয়ে যায় তাহলে পৃথিবীতে আর আগুন জ্বলবে না।

আর আগুন যে আমাদের জন্য কতটুকু গুরুত্বপূর্ণ সেটা আপনি ভালো করেই জানেন।

যোগাযোগ ব্যবস্থার জন্য অক্সিজেন

অক্সিজেন ছাড়া কিন্তু যোগাযোগ ব্যবস্থার অনেক অবনতি ঘটবে।কারন গাড়ি চলে ফিউলের মাধ্যমে।

এখন যদি হঠাৎ করে অক্সিজেন না থাকে তাহলে কম্প্রেশন হবে না।এর কারনে সকল গাড়ি বন্ধো হয়ে যাবে।

আকাশে উড়া বিমান হেলিকপ্টার কিন্তু অক্সিজেনের মাধ্যমেই উড়ে থাকে।এখন যদি অক্সিজেন না থাকে তাহলে উপরে থাকা বিমান হেলিকপ্টার নিচে ছিটকে পড়বে।

আমরা জানি,সূর্য থেকে আসা অতি বেগুনি রশ্মি পৃথিবীতে আসতে বাধা দেয় ওজন স্তর।আর এই ওজন স্তরটি কিন্তু অক্সিজেনের তৈরি।

এখন হঠাৎ করে যদি অক্সিজেন না থাকে, তাহলে সূর্যের অতি বেগুনি রশ্মি কোন বাঁধা না পেয়ে সোজা পৃথিবীতে চলে আসবে।এরফলে আরো ভয়াবহ বিপর্যয় নেমে আসবে।

কারণ সূর্যের অতি বেগুনি রশ্মির কারণে পৃথিবীর সব কিছু রোদে গলে যাবে। এর কারণে পৃথিবী বেঁচে থাকার জন্য অনুপযোগী হয়ে উঠবে।

আলোকে রিফ্লেক্ট করে কিন্তু অক্সিজেন কণা।এখন যদি অক্সিজেন না থাকে তাহলে দিনের বেলায়ও সব কিছু অন্ধকার দেখাবে।

আমাদের দেহের ৭০ ভাগই পানি।আর পানি তো অক্সিজেন ও হাইড্রোজেনের সমন্বয়ে তৈরি।

এখন যদি হঠাৎ করে অক্সিজেন নাই থাকে তাহলে পানির অভাবে আমাদের শরীর একদম শুকিয়ে যাবে।এর ফলে আমাদের মৃত্যু ঘটবে নিশ্চিত।

শুধু যে মানুষের ক্ষেত্রে এমনটা ঘটবে তা কিন্তু নয়, পৃথিবীতে বসবাসকারী সকল প্রাণীর ক্ষেত্রে এমনটা ঘটবে।

মস্তিষ্ককে সচল রাখার জন্য বা এর কার্যকারিতা ঠিক রাখার জন্য অক্সিজেনের গুরুত্ব অপরিসীম। এক কথায় মস্তিষ্কের জ্বালানি হলো অক্সিজেন।

এখন হঠাৎ করে যদি অক্সিজেন না থাকে তাহলে মস্তিষ্কের কোষ গুলো মরতে থাকবে।

অক্সিজেনের অভাবে সব কিছু উল্টা-পাল্টা দেখতে থাকবেন।এক কথায় পুরা পাগল হয়ে যাবেন।

শ্রবণশক্তির জন্য অক্সিজেন

আমাদের শ্রবণশক্তির জন্যও কিন্তু অক্সিজেন অনেক ভূমিকা পালন করে। অক্সিজেন আমাদের শ্রবণশক্তি ঠিক রাখে।

এখন হঠাৎ করে যদি অক্সিজেন না থাকে তাহলে আমাদের শ্রবণশক্তি ফেটে যাবে।

অক্সিজেন এর কারনে ২১ শতাংশ বাতাস চলে যাবে।হঠাৎ করে এতো বড় পরিবর্তন আমাদের কান সহ্য করতে পারবে না।

কারন অক্সিজেন এর অভাবে আমাদের কানে থাকা ইয়ার ড্রাম ফেটে যাবে।আর ইয়ার ড্রাম ফেটে যাওয়ার কারনে আমাদের শ্রবনশক্তি ধ্বংস হয়ে যাবে।

 

শেষ কথা

আপনি হয়তো ভাবতে পারেন,৫ সেকেন্ড পর যদি পূনরায় আবার অক্সিজেন চলে আসে তাহলেই তো পৃথিবী ঠিক আগের পরিবেশে চলে আসবে।

না কখনোই পৃথিবী তার আগের রুপে ফিরে আসতে পারবে না!

৫ সেকেন্ড পর অক্সিজেন চলে আসলে পুরো পৃথিবী ঠান্ডা হয়ে আসবে।কারন ৫ সেকেন্ড পর অক্সিজেন আসলে অক্সিডাইসাইড তৈরি হবে।এতে করে পৃথিবীতে ভয়ানক বিস্ফোরণ হবে।

৫ সেকেন্ডর জন্য যদি অক্সিজেন গায়েব হয়ে যায় তাহলে পৃথিবী ধ্বংস হয় যেতে পারে।

 

এই রকম রোমাঞ্চকর বিজ্ঞান নির্ভর সব আর্টিকেল পেতে BloggersBD24.Com এর Environment কলামে চোখ রাখুন।ধন্যবাদ।

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *